বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
মেধাবী ছাত্র আব্দুল্লাহ আল মামুন এর পাশে দাঁড়িয়েছেন নিঃস্বার্থ সেবা ফাউন্ডেশন জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নে ইবিতে সভা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক হলেন রজত কান্তি দেব কক্সবাজারে দৈনিক ভোরের চেতনা পত্রিকার ২৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উৎযাপন মিরপুরে নার্সারি ব্যবসায়ী হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার ১ ইবি ও জবি’র গবেষণা সহযোগিতা সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর উন্নত চিকিৎসার জন্য চ্যালেঞ্জকে ঢাকায় প্রেরণ ব্রাজিল ফ্যান ক্লাবের বর্ণাঢ্য র‌্যালী বাউলদের উপর হামলা ও সাম্প্রদায়িক উগ্রবাদী তৎপরতার প্রতিবাদে মানববন্ধন ইবি’র ৪৩ বছর পূর্ণ হচ্ছে কাল
ঘোষণা:
দেশের প্রতিটি জেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।

আজ প্রশাসনের পরিচয় দিচ্ছে ছিনতাইকারী : কাল খুনীদের থেকে সাবধান !!

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৪৩৫ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ৪:৪৮ পূর্বাহ্ন

ছিনতাইকারী চক্রের এখন বড় হাতিয়ার হচ্ছে র‌্যাব-ডিবি পুলিশের পরিচয় দেয়া। সপ্তাহ খানেক ধরে ছিনতাইকারী চক্র র‌্যাব-ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে কুষ্টিয়া শহরে প্রায় ১০টি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছে। এর থেকে বেশীও হতে পারে যা সংবাদীয় তথ্যে এখনও জানা যায়নি। গতকালও ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে ট্রাক ছিনতাইকালে কুষ্টিয়া র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছে ছিনতাইকারী চক্রের এক সদস্য। আজ ছিনতাইকারী চক্র গ্রাম থেকে শহরে আসা সাধারন জনগণকে পথিমধ্যে গতিরোধ করে র‌্যাব-ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে হঠাৎ থমকে দিয়ে মানসিকভাবে দুর্বল করে তল্লাশীর নামে ছিনতাই করে পালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু আগামীতে একটি চক্র বা একজন খুনী শত্রুতা বশত: খুন করে র‌্যাব-ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে প্রশাসনকে বিতর্কিত করতে না পারে সেদিকে সজাগ থাকা দরকার বলে সচেতন মহল মনে করেন।
প্রত্যন্ত গ্রাম ছাড়াও বিভিন্ন অঞ্চলের দুর-দুরান্ত থেকে সাধারন জনগণ প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে ছুটে আসে শহরে। আর তারা বহিরাগত হওয়ার সুযোগেই ছিনতাইকারী চক্র নয়া কৌশল হিসেবে কখনো র‌্যাব সদস্য কখনো আবার ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। আবার প্রশাসনিক ভাবমুর্তি শক্ত করতে খেলনা পিস্তলও ব্যবহার করছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ছাড়াও বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, গত সাত দিনে কুষ্টিয়ায় প্রায় ১০টি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। প্রতিটি ছিনতাইয়ের ঘটনাই ঘটনানো হয়েছে প্রশাসনের সদস্য পরিচয়ে। কুষ্টিয়ায় এমনই এক ছিনতাইকারী চক্র প্রতিনিয়তই শিক্ষক ও শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন জনকে টার্গেট করে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের ছিনতাই কার্যক্রম।
প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, এই চক্রটি ২ সদস্যের টিমে ভাগ হয়ে শহরের বিভিন্ন অঞ্চলের চালিয়ে যাচ্ছে ছিনতাই কার্যক্রম। তাদের শিকার হচ্ছেন নানা কাজে শহরে আসা জনসাধারন।
গত ১৯শে ফেব্র“য়ারী এইচ এস সি পরীক্ষার্থী জেরিন ব্যক্তিগত কাজে শহরের হসপিটাল মোড়ে দাড়িয়ে ছিলেন। হঠাৎ ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা এসে র‌্যাব সদস্য পরিচয় দিয়ে তার ব্যাগ তল্লাশি করে। এ সময় ছিনতাইকারীরা ব্যাগে থাকা মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়।
গত ২০শে ফেব্র“য়ারী আমিন হসপিটালে দৌলতপুর থেকে চিকিৎসা নিতে আসা ২ শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে করা হয় ছিনতাই।
গত ২১ ফেব্র“য়ারী কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের শিক্ষার্থী আমিনকে পিয়ারাতলায় র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে পথরোধ করে তার মোবাইল ফোন ছিনতাই করা হয়।
আবার গত ২২ ফেব্র“য়ারী তারেক নামের এক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ডিবি পুলিশ সদস্য পরিচয়ে ইয়াব আছে এমন অভিযোগ দিয়ে তল্লাশী করে ছিনতাই করা হয় মানিব্যাগ ও মোবাইল।
গত ২৫ ফেব্র“য়ারী ডোরা খাতুন নামে এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার কাছ থেকে প্রশাসনের সদস্য পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোন ছিনতাই করা হয়।
এদিকে একই দিনে বেলা সাড়ে ১১ টার সময় কুমারখালী উপজেলার নন্দলালপুর ইউনিয়নের সদরপুর গ্রামের নায়েব আলী শেখের ছোট মেয়ে কুষ্টিয়া সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স পুড়ুয়া বাংলা বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ফারজানা আক্তার জ্যোতি কুমারখালির সদরপুর বাড়ি ফেরার পথে আলাউদ্দিন নগর বাসস্ট্যান্ডে নামলে র‌্যাব পরিচয়ে দুইজন মোটরসাইকেল আরোহী জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ এনে ভুক্তভোগীর হাতে থাকা মোবাইল ফোন ছিনতাই করে নেয়।
এদিকে গতকাল র‌্যাব-১২ বিশেষ অভিযান চালিয়ে ট্রাক, পিআপ সহ বিভিন্ন যানবাহন ছিনতাই চক্রের সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।
এ বিষয়ে একাধিক ভুক্তভোগী জানায়, প্রশাসনের পরিচয় দিয়ে তাদের কাছ থেকে করা হয়েছে ছিনতাই। পরে তারা বুঝতে পারে তারা প্রশাসনের কোন সদস্য নয়, তারা ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। তাই প্রশাসনের কাছে তাদের দাবী এ ধরনের ছিনতাইকারী চক্রকে আইনের আওতায় এনে ছিনতাই এর হাত থেকে রক্ষা করা হোক জনসাধারনকে।
এ বিষয়ে কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২’র অধিনায়ক মেজর গাফফারুজ্জামান বলেন, এ ধরনের ঘটনার সাথে যতবড় শক্তিশালী চক্রই জড়িত হোক না কেন তাদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।
এ বিষয়ে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার মো: খাইরুল আলম বলেন, এ ধরনের প্রতারনামুলক ঘটনা যারাই ঘটাক না কেন তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। কুষ্টিয়ায় জেলায় এ ধরনের ঘটনা কোনভাবেই ঘটতে দেওয়া হবে না।
আজ ছিনতাইকারী চক্র র‌্যাব-পুলিশ পরিচয় দিয়ে ছিনতাই করে পালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু আগামীতে যেন র‌্যাব-ডিবি পরিচয় দিয়ে কোন চক্র বা ষড়যন্ত্রমুলক কোন খুনী হত্যাকান্ডের মতো ঘটনা ঘটিয়ে প্রশাসনের উপর ষড়যন্ত্রমুলক উড়ন্ত দোষ চাপাতে না পারে সে বিষয়ে সবসময় সজাগ থাকা প্রয়োজন বলে স্থানীয় সচেতন মহল মনে করেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর