মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৩৩ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
দেশের প্রতিটি জেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।

কুষ্টিয়ায় পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯১তম জন্মদিন পালন 

সলেমান শাহ্, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি / ৩১২ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ২০ মার্চ, ২০২১, ৯:৪৫ অপরাহ্ন

নয়ন তোমারে পায়না দেখিতে, রয়েছো নয়নে নয়নে,হৃদয় তোমারে পায়না জানিতে হৃদয়ে রয়েছো গোপনে।আজ ২০ মার্চ। সাবেক রাষ্ট্রপতি, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯১তম জন্মদিন। সারাদেশের ন্যায় কুষ্টিয়া তেও পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ৯২ তম জন্মদিন স্বরণ সভা  ও দোয়া অনুষ্ঠান করেছে কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় পার্টি। শনিবার বিকালে কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় কৃষক পার্টির সহ সভাপতি ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নাফিজ আহমেদ খান টিটুর সভাপতিত্বে স্বরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক  সুমন আশরাফ ও জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক  শাহারিয়ার জুয়েল,বক্তব্য দেন জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক নাসরিন সিরাজুল হক চাঁদু,সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, সহ-সভাপতি এসএম আনোয়ার, দৌলতপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হুদা, এম কে রবিউল, শামীম মন্ডল, আনুসুর রহমান হানিফ,লাল,সান, কামাল, জেলার নেতা সরোয়ার মন্ডল,আব্দুিল বাকির, নাইম,আলতাব সাবের,জাহিদ আলতাব,  রাজ্জাক,নাজমুল, তপন প্রমুখ। এসময় বক্তারা বলেন, দীর্ঘ ৯১ বছরে এই দ্বিতীয় পল্লীবন্ধুকে ছাড়াই তার জন্মদিন পালন করছেন লাখো ভক্ত-অনুরাগী। এই প্রথম ২০ মার্চ লাল পাঞ্জাবীতে পরিপাটি পল্লীবন্ধুর হাসোজ্জ্যল মুখটি দেখতে পাবেন না দেশবাসী। জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীরা পিতৃতুল্য এরশাদকে পাবেন না জন্মদিনের জমকালো আয়োজনে।
১৯৩০ সালের ২০ মার্চ সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, বাংলাদেশের উন্নয়নের মহান রুপকার, আধুনিক বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা ও বাংলাদেশের ইতিবাচক রাজনীতির কিংবদন্তি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ কুড়িগ্রাম শহরের “লাল দালান” বাড়ি খ্যাত নানাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন।
বাংলাদেশের রাজনীতিতে অনেক কীর্তি গড়েছেন পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি পৃথিবীর ইতিহাসে অনন্য রাজনীতিবিদ। সামরিক বাহিনী থেকে রাজনীতিতে এসে দেশ পরিচালনা করে ক্ষমতা হস্থান্তরের পরেও বিরোধী রাজনীতিতে অত্যন্ত প্রভাবশালী ছিলেন।যদিও সেনাবাহিনী থেকে রাজনীতিতে এসে ক্ষমতা হস্থান্তরের পরে জনপ্রীয়তার শীর্ষে থাকার উদাহরণ নেই বললেই চলে।
আবার ক্ষমতা হস্থান্তরের পরে দীর্ঘ ৬ বছর কারাগারে ছিলেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর স্বেচ্ছায় ক্ষমতা হস্থান্তরের কয়েকদিনের মাথায় গ্রেফতার হন তিনি। ১৯৯৭ সালের ৯ জানুয়ারি কারাগার থেকে মুক্তি পান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
কারাগারে থাকাকালীন ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে ৫টি করে আসনে জয়ী হন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। জেলে থেকে নির্বাচনের এমন বিজয় সাফল্যের নজিরও নেই ইতিহাসে। কোনো নির্বাচনে না হারার রেকর্ডও আছে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর