শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৮:২২ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
দেশের প্রতিটি জেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।

কুষ্টিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত -৪, আহত-১৫

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৩ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : সোমবার, ২ মে, ২০২২, ৯:২১ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ার ইবি থানা এলাকার ঝাউদিয়া ইউনিয়নের আস্থানগর গ্রামে কেরামত ও ফজলু গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে চার জন নিহত হয়েছে। এঘটনায় আরও ১৫ জন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুস্তাফিজুর রহমান রতন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে কেরামত ও ফজলু মন্ডল গ্রুপের মধ্যে কোন্দল চলে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় সোমবার ২ মে বিকাল ৫ টার দিকে জমি- জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কেরামত ও ফজলু মন্ডল গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে রহিম মালিথা নামের একজন ঘটনাস্থলে মারা যায়। পরে হাসপাতালে নিয়ে আসার পর মতিয়ার (৪০),লাল্টু(৩০), কাশেম( ৫০) নামের আরও তিন জন মারা যায়। আহত অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অন্তত ১২/১৫ জন ভর্তি রয়েছে। এর মধ্যে ৫ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। মায়নাতদন্তের জন্য নিহতদের মরদেহ কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে রাখা হয়েছে। এঘনটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান রতন বলেন, আমি ঈদের ছুটিতে আছি। দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কেরামত ও ফজলু গ্রুপের মধ্যে কোন্দল চলে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় বিকেলের দিকে সংঘর্ষ হয়। এতে চারজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা ঝাউদিয়া থানার আস্থানগর গ্রামের মৃত হোসেনের ছেলে কাশেম( ৫০), মোঃ দাদি মন্ডলের ছেলে লাল্টু (৩০), আবুল মালিথার ছেলে রহিম (৫০) ও মোঃ আফজাল মন্ডলের ছেলে মতিয়ার (৪০)। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতয়েন করা হয়েছে। এলাকা জুড়ে এখন থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে আবারও সংঘর্ষের আশংকায় আতঙ্কিত এলাকার সাধারণ মানুষ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর