শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
দেশের প্রতিটি জেলায় সাংবাদিক নিয়োগ চলছে।

নাগরিক ভাবনায় পদ্মা সেতু ও মেট্রোরেল

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫১ বার পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ মে, ২০২২, ২:৫৮ অপরাহ্ন

নাগরিক ভাবনায় পদ্মা সেতু ও মেট্রোরেল

তোফাজ্জল হোসেন
প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি
বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী ফোরাম।

আসছে জুন-২০২২ ইং সালে চালু হতে যাচ্ছে আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু। সংবাদটি যেমন অতি আনন্দের, তাই নিরানন্দ যেনো না হয় সেটাই ভাবছি।

পবিত্র ঈদুল ফিতরের সপ্তাহখানেক আগে, যাত্রাবাড়ী হতে চার ঘন্টায় মিরপুর ১০ নাম্বারে আসলাম। সামনে চালু হবে পদ্মা সেতু এবং মেট্রো রেল। সব মিলিয়ে সুখকর ও আনন্দের বাতাস বইছে জনমনে।

প্রতিদিন রাস্তায় নামছে নতুন নতুন হাজার হাজার গাড়ি। পদ্মা সেতু চালু হলে ঢাকা শহরে যানবাহনের চাপ ৫০ ভাগ বেড়ে যাবে। আমাদের সরকার মহোদয় যানজটের কথা চিন্তা ভাবনা করে উদ্যোগ নিয়েছেন পাতাল রেল স্থাপন করার। যাতে ব্যয় হবে হাজার হাজার কোটি টাকা ও অনেক দীর্ঘ সময়।

আমি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত এবং চায়নাতে দেখেছি, মানুষ প্রতিনিয়ত একশত কিলোমিটার পথ রেলে পাড়ি দিয়ে রাজধানীতে গিয়ে নিয়মিত অফিস করছে, এবং অফিস শেষে নিজ নিজ বাসায় ফিরে গিয়ে দিনাতিপাত করছে।

তাই আমি আমার ক্ষুদ্র চিন্তাধারা হতে বলছি যে, পাতাল রেলের সেই বরাদ্দ বাজেট দিয়ে, যদি ঢাকার চারিপাশে ১শ কিলোমিটারের মধ্যে যে সকল জেলা গুলো আছে, সেসব জেলাগুলোর সাথে রাজধানীর ঢাকার ডাবল রেললাইন স্থাপন করা যেত, তাহলে ঢাকায় জনসংখ্যার চাপ ৫০ ভাগ কমে যেত।এই ১শ কিলোমিটারের মধ্যে স্থাপিত ঘর বাড়ীগুলো রাজধানী ঢাকার আদলে গড়ে উঠে নান্দনিক শহরে রূপ পেত।

এই ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করতে গেলে প্রথমেই আমাদের দরকার হবে জায়গা অধিগ্রহণ।
আমি সরকারের নীতিনির্ধারক মহলের সু দৃষ্টি আশা করছি যে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশে, রাজধানী ঢাকার সাথে ১০০ কিলোমিটার দূরত্বের জেলা গুলোর সাথে ডাবল রেললাইন স্থাপন করা, একমাত্র জাতির পিতার কন্যার শাসনামলেই সম্ভব।

আমি মনে করি পাতাল রেলের বরাদ্দ অর্থ দিয়ে, দৃশ্যমান রেলের পরিকল্পিত প্লান বাস্তবায়ন করা সম্ভব।
একশত বছরের যানজট মুক্ত বাংলাদেশ চিন্তা করলে,ঢাকা হতে ১শ কিলোমিটারে র মধ্যে, সেই সকল জেলাগুলোতে রেলের ডবল লাইন চালু করা গেলে, আমরা ২০৩১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবো বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।

আমি আরো আশা করছি দ্রুততম সময়ের মধ্যে রাজধানীর চলমান এক্সপ্রেস ওয়ে গুলোর কাজ শেষ হবে।

জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।

তোফাজ্জল হোসেন
প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি
বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী ফোরাম।
কেন্দ্রীয় কমিটি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন


এ জাতীয় আরো খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর